অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ বাংলা
অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ বাংলা

অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ বাংলা । ( বাংলা উপন্যাস – ১ ) 

অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ বাংলা বিভাগের ( বাংলা উপন্যাস – ১ ) নিয়ে আমাদের আজকের পোস্ট । আজকে আমি আপনাদের  জন্য আপনাদের সুবিধার্থে অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ বাংলা উপন্যাসের অংশ টা সুন্দর করে সাজিয়ে লেখার চেষ্টা করেছি ।

সম্পূর্ণ পোস্ট টি পড়লে আশা করছি আপনাদের অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ এর জন্য অনেক উপকৃত হবেন ইনশাআল্লাহ্‌ ।

এবং অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ বাংলা বিভাগের সকল সাবজেক্ট নিয়ে ধারাবাহিক ভাবে পোস্ট করব ইনশাআল্লাহ্‌ । আপনারা যদি বাংলা বিভাগের সকল সাবজেক্ট সাজেশন পেতে চাইলে নিয়মত আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন । 

এবং মার্কেটিং সংক্রান্ত পোস্ট পেতে এই লিঙ্ক এ ভিজিট করুনঃ এফিলিয়েট মার্কেটিং

নিম্নে অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ বাংলা ( বাংলা উপন্যাস – ১ ) দেয়া হলঃ

ক – বিভাগঃ অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর – অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ বাংলা

১ ) কপালকুণ্ডলা কোন জাতীয় উপন্যাস ?

উত্তরঃ রোমান্সধর্মী ।

২ ) কপালকুণ্ডলা উপন্যাস টি কোন ভাষায় রচিত ?

উত্তরঃ সাধু ভাষায় রচিত ।

৩ ) কপালকুণ্ডলা শব্দের অর্থ কি ?

উত্তরঃ বাঁকা কপাল , মন্দ ভাগ্য ।

৪ ) কপালকুণ্ডলা কত সালে প্রকাশিত হয় ?

উত্তরঃ ১৮৬৬ সালে ।

৫ ) বাংলা সাহিত্যের প্রথম রোমান্টিক উপন্যাসের নাম কি ?

উত্তরঃ ‘কপালকুণ্ডলা’ ।

৬ ) নবকুমারের প্রথম স্ত্রীর নাম কি ?

উত্তরঃ পদ্মাবতী ।

৭ ) “ কপালকুণ্ডলা কে তা জানিনা – আমি একজন পথিক , আপাতত দস্যুহস্তে নিস্কুনডলা হইয়াছি “ – কার উক্তি ?

উত্তরঃ পদ্মাবতীর উক্তি ।

৮  ) “ এই পথিকের সঙ্গে দেশান্তরে যাও ।” কে কাকে বলেছে ?

উত্তরঃ অধিকারী কপালকুণ্ডলাকে বলেছে । 

৯ ) বিষাদ-সিন্ধু কোন ধরনের রচনা ?

উত্তরঃ এটি একটি উপন্যাস । 

১০ ) বিষাদ – সিন্ধু কত সালে প্রকাশ পায় ?

উত্তরঃ ১৮৯১ সালে ।

১১ ) সখিনার স্বামীর নাম কি ?

উত্তরঃ কাসেম

১২ ) ইমাম হোসেনের কয়জন স্ত্রী ?

উত্তরঃ ৩ জন।

১৩ ) “ যার দুই তিন স্ত্রী , তার প্রান বধ করিতে কতক্ষণ লাগে ? – কথা টি কে বলেছিল ?

উত্তরঃ মায়মুনা ।

১৪ ) হিজরি কত সনে ইমাম হাসানের মৃত্যু হয় ?

উত্তরঃ হিজরি ৫০ সনের রবিউল আউয়াল ।

১৫ ) জয়নাল আবেদিন কে ?

উত্তরঃ ইমাম হোসেনের পুত্র ।

১৬ ) সীমার কে ?

উত্তরঃ এজিদ পক্ষের শ্রেষ্ঠ যোদ্ধা । সে নৃশংস , অর্থলোভী , হৃদয়হীন । এই হৃদয়হীনেই ফরাত নদীর তীরে কারবালার প্রান্তরে ইমাম হোসেন কে নির্মমভাবে হত্যা করে ।

১৭ ) মাবিয়া কত বছরের স্ত্রী লোককে বিবাহ করেন ?

উত্তরঃ আশি বছরের স্ত্রী লোককে ।

১৮ ) এজিদের প্রিয় পাত্র কে ছিলেন ?

উত্তরঃ মারওয়ান ।

১৯  ) দামেস্কের প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন ?

উত্তরঃ হামান ।

২০ ) সাদিয়ানা বাদ্য বাজানো হয় কি কারনে ?

উত্তরঃ শুভ সংবাদের কারনে ।

২১ ) এজিদ পিতার মৃত্যুর পর রাজদণ্ড হাতে নিয়েই কার বিচার করেন ?

উত্তরঃ মোসলেমের 

২২ ) রওজা কি ?

উত্তরঃ সমাধি প্রাঙ্গণ ।

২৩ ) বোরকা কি ?

উত্তরঃ আপাদমস্তক আবরণ বসন ।

২৪ ) মায়মুনা প্রায়েই কার অন্তপুরে যাতায়াত করত ?

উত্তরঃ ইমাম হাসানের ।

২৫ ) ‘বায়েত কি’ ?

উত্তরঃ মুসলমান ধর্মে দীক্ষিত হওয়াকে বায়েত বলে ।

২৬ ) বিষাদ সিন্ধু উপন্যাসের শ্রেষ্ঠ চরিত্র কোনটি ?

উত্তরঃ এজিদের চরিত্র ।

২৭ ) এজিদ কার রূপে আকৃষ্ট হয়?

উত্তরঃ জয়নবের রূপে ।

২৮ ) হাসান কে কুফা যেতে নিষেধ করেন কে ?

উত্তরঃ বিবি সালেমা ।

২৯ ) স্বর্গে সবুজ বর্ণের ঘরটি কার জন্য নির্মিত হয়েছিল ?

উত্তরঃ হাসানের

৩০ ) কারবালা প্রান্তরে মূলত কি কারনে কুঠারে রক্তের দাগ দেখা যায় ?

উত্তরঃ দারু গাছের কারনে ।

৩১ ) ফোরাতকুলে যুদ্ধে যাওয়ার পূর্বে কাসেম তার পিতার দেয়া কবচের অপর পৃষ্ঠে কি লেখা দেখতে পেয়েছিলেন ?

উত্তরঃ “এখনই  সখিনাকে বিবাহ কর । “

৩২ ) কার তরবারির আঘাতে এজিদের সেনাপতি ওমরের অশ্বের শির আলাদা হয়ে গিয়েছিল ?

উত্তরঃ ওমর আলীর ।

৩৩ ) চোখের বালি কত সালে প্রকাশিত হয় ?

উত্তরঃ ১৯০৩ সালে ।

৩৪ ) ‘চোখের বালি’ শব্দের অর্থ কি ?

উত্তরঃ শত্রুতা , সর্বনাশ করা ।

৩৫ ) মহেন্দ্র তার স্ত্রী আশালতাকে কি বলে ডাকত ?

উত্তরঃ চুনি ।

৩৬ ) ‘ ছুরি দিয়া কাটিয়া তোমার বুকের ভিতর হইতে তাহাকে বাহির করিব ।’ কে কাকে বলেছে ?

উত্তরঃ মহেন্দ্র বিহারীকে ।

৩৭ ) ‘তুমি আমাকে সর্বনাশের মুখে টেনে এনেছ ।’ কে কাকে বলেছে ?

উত্তরঃ বিনোদিনী মহেন্দ্র কে সর্বনাশের মুখে টেনে এনেছে ।

৩৮ ) রাজলক্ষ্মী কে ?

উত্তরঃ মহেন্দের মা ।

৩৯ ) ‘ আমি বিনোদিনীকে বিবাহের প্রস্তাব করিয়াছি ।’ কার উক্তি ?

উত্তরঃ বিহারী

৪০ ) ক্রীতদাসের হাসি উপন্যাসের শেষ বাক্যটি কি ?

উত্তরঃ “ হাসি মানুষের আত্নারই প্রতিধবনি ।

৪১ ) খলিফা হারুনুর রশিদের সহধর্মিণী কে ?

উত্তরঃ বেগম জুবায়দা ।

৪২ ) ‘আবে-হায়াত’ শব্দের অর্থ কি ? 

উত্তরঃ যে জল পানে অমরত্ব মেলে ।

৪৩ ) তাতারির হাসি কিসের প্রতিক ?

উত্তরঃ স্বাধীনতার প্রতীক ।

খ – বিভাগঃ সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন

১ ) নবকুমারের সংক্ষিপ্ত পরিচয় দাও ।

২ ) কাপালিকের সংক্ষিপ্ত পরিচয় দাও ।

৩ ) অধিকারী কে ? সংক্ষেপে পরিচয় দাও ।

৪ ) “ আমি বনচর ছিলাম , আবার বনচর হইব ।” কে কেন বলেছেন ?

৫ ) পদ্মাবতী ও কাপালিক কিভাবে একত্রিত হয় ?

৬ ) নবকুমারের সাথে কপালকুণ্ডলার প্রথম সাক্ষাতের বর্ণনা দাও ।

৭ ) “প্রদীপ নিভিয়া গেল ।” ব্যাখ্যা করো ।

৮ ) কপালকুণ্ডলার পরিনতির জন্য কে দায়ী ?

৯ ) ‘বিষাদ-সিন্ধু সকল ধর্মের মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য কেন ?

১০ ) সীমারের সংক্ষিপ্ত পরিচয় দাও ।

১১ ) হাসানের সংক্ষিপ্ত পরিচয় দাও ।

১২ ) জায়েদার সংক্ষিপ্ত পরিচয় দাও ।

১৩ ) এজিদের শেষ পরিনতি কি হয়েছিল ?

১৪ ) “আমাদের জাতের ধর্ম এই রূপ আমরা মায়াবিনী ।” কে কেন  বলেছেন ?

১৫ ) “ ঘরের শ্রী ফিরিয়া গেল ।” ব্যাখ্যা কর ।

১৬ ) মহেন্দ্র বারি ছেড়ে গেল কেন ?

১৭ ) ‘ সমাজের কাছে আমি তোমাকে লাঞ্ছিত করিব , এ কখনই হতে পারেনা ।’ কে কাকে বলেছিল ?

১৮ ) তাতারী চরিত্র টি সংক্ষেপে চিত্রণ কর ।

১৯ ) “খলিফা হারুনুর রশিদের সংক্ষিপ্ত পরিচয় দাও ।

গ – বিভাগঃ রচনামূলক প্রশ্ন

১ ) “কপালকুণ্ডলা উপন্যাসের ভাষা কাব্যধর্মী ।”

২ ) রোম্যন্স কি ? রোম্যন্সের আলোকে কপালকুণ্ডলা উপন্যাসের শিল্প সার্থকতা আলোচনা কর।

৩ ) কপালকুণ্ডলা উপন্যাসের আলোকে নবকুমারের চরিত্র বিশ্লেষণ কর ।

৪ ) কপালকুণ্ডলা উপন্যাসের আলোকে কপালকুণ্ডলা চরিত্র বিশ্লেষণ কর ।

৫ ) “ বাংলা উপন্যাসের ধারায় ‘কপালকুণ্ডলা ‘ সার্থক রোমান্টিক উপন্যাস আলোচনা কর ।

৬ ) “বিসাদ-সিন্ধুর” শ্রেষ্ঠ সম্পদ এর ভাষাশৈলী ।” আলোচনা কর।

৭ ) মীর মোশাররফ হোসেনের ‘বিসাদ-সিন্ধু’ উপন্যাসের নামকরণের সার্থকতা বিচার কর।

৮ ) “ বিষাদ সিন্ধু “ উপন্যাস অবলম্বনে এজিদ চরিত্র টি বিশ্লেষণ কর ।

৯ ) চোখের বালি উপন্যাসের শিল্পমূল্য আলোচনা কর ।

১০ ) ‘ চোখের বালি ‘ উপন্যাস অবলম্বনে “বিনোদিনী” চরিত্র  টি বিশ্লেষণ কর।

১১ ) “ মন্সতাত্তিক জতিলতা ‘চোখের বালি’ উপন্যাসের প্রধান বৈশিষ্ট্য “ বিশ্লেষণ কর।

১২ ) ‘ ক্রীতদাসের হাসি উপন্যাসের সাংগঠনিক বৈশিষ্ট্য বিশ্লেষণ কর।

১৩ ) খলিফা হারুনুর রশিদের চরিত্র বিশ্লেষণ কর।

১৪ ) ‘ ক্রীতদাসের হাসি ‘ উপন্যাসের নামকরণের তাৎপর্য ব্যাখ্যা কর ।

১৫ ) প্রতীকধর্মী উপন্যাস হিসেবে ‘ ক্রীতদাসের হাসি ‘র সার্থকতা বিচার কর । 

অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ কবিতার পার্ট পড়তে এই লিঙ্ক এ ভিজিট করুনঃ অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ । ( বাংলা কবিতা – ১ ) 

আমাদের আজকের পোস্ট টি ছিল মূলত বাংলা বিভাগের অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ । আশা করছি  অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ বাংলা ( বাংলা উপন্যাস – ১ ) পড়ে আপনাদের ভাল লেগেছে  । যদি আজকের পোস্ট টি পড়ে আপনারা উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ১ম বর্ষ সাজেশন ২০২২ বাংলা পোস্ট টি আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন । সম্পূর্ণ পোস্ট টি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ ।

জাযাকাল্লাহ খাইরান ।

Sumaiya Jahan Fatema

This Post Has 2 Comments

  1. UM Wasim Reza

    মাশাআল্লাহ।
    খুব ভালভাবে তৈরি করে দিলেন সাজেশন টা।
    কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। 🥰

Leave a Reply

five × 2 =

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.