ইসলাম
ইসলাম

মুমিনের পরীক্ষা | মুমিনের বৈশিষ্ট্য পর্ব ১

কেন আমার সাথেই এমন হয়? কেন এত পরীক্ষা নেন আল্লাহ আমার? এই ধরনের কথা আমরা প্রায়শই বলে থাকি। অথচ আমরা যখন ভাল সময় অতিক্রম করি, সুখে থাকি আল্লাহ্র দেওয়া নিয়মাহ্ গুলো উপভোগ করি তখন কিন্তু বলি না আল্লাহ কেন আমাকে এত ভালবাসেন, কেন এত নিয়ামাহ্ দেন?? বলি কি?

ঠিক শৈশবের কথাই চিন্তা করুন যখন বাবা-মা আমাদের অনেক কষ্টে অনেক পরিশ্রম করে অর্থ খরচ করে আমাদের বড় করেন কিন্তু আমরা যখন কোন টাকা তাদের কাছে জমা রাখি (হৌক ঈদের সালামি) কিছু চেয়ে না পেলেই বলি আমাকে এটা দাও না, সেটা দাও না আমার টাকা ফেরৎ দাও!!

আপনি কখন খুব বেশি আল্লাহকে স্মরন করেন যখন খুব খুশি থাকেন তখন নাকি যখন কষ্টে থাকেন, নানা রোগ শোক আপনাকে ঘিরে ধরে তখন? আর্থিক সচ্ছলতা কিন্তু আমাদের জন্য বড় পরীক্ষা হয়ে যেতে পারে যেমন ধরুন আপনার খুব সুন্দর বাড়ি আছে আরামদায়ক বিছানা আছে, এসির ব্যাবস্থা আছে আর আপনি ঘুমিয়ে থাকেন কিন্তু প্রতিদিন ফজরের সলাতটা মিস করেন, আপনি ব্যাবসা নিয়ে এতটাই ব্যাস্ত যে এক ওয়াক্ত সলাত আদায় করার বাবা মার সাথে সাক্ষাৎ করার জন্য আপনার সময় হয় না।

কিন্তু আপনার আরেক ভাই কঠিন রোগে পড়ে, আর্থিক অসচ্ছলতায় পতিত হয়ে আল্লাহর কাছে কান্নাকাটি করে তার কাছে ফিরে গেলেন। আল্লাহকে পেয়ে যাওয়াটা কি সফলতা নয়। মনে করে দেখো, তোমাদের প্রভু কথা দিয়েছিলেন, “যদি তোমরা কৃতজ্ঞ হও, তাহলে আমি তোমাদেরকে আরও দিতেই থাকবো। কিন্তু তোমরা যদি অকৃতজ্ঞ হও।

আমার শাস্তি প্রচণ্ড কষ্টের।” [ইব্রাহিম ১৪:৭] মুমিনদের একটি বৈশিষ্ট্যের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে তারা সর্বদা তাদের রবের প্রতি কৃতজ্ঞ থাকে অভাবে এবং সচ্ছলতা উভয় সময়েই। আল্লাহ বলেন, “আমাকে মনে করো, আমিও তোমাদেরকে মনে করবো ” [ আল-বাক্বারাহ ১৫২]

আব্দুল্লাহ (রদিয়াল্লাহু আনহু) থেকে বর্নিত, ‘রাসূলুল্লাহ (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) একটি মাদুরে ঘুমিয়েছিলেন– যার ফলে তার পার্শ্বদেশে মাদুরের ছাপ লেগে গিয়েছিল। আমরা বললাম, ‘হে আল্লাহর রাসূল, আপনি কি আমাদেরকে অনুমতি দিবেন না যে আমরা আপনার নিচে এর চেয়ে অধিক কোমল কিছু বিছিয়ে দেই? ‘

জবাবে তিনি বললেন, “এ দুনিয়ার সাথে আমার কি সম্পর্ক? এ দুনিয়ার সাথে আমার দৃষ্টান্ত হলো এমন এক অশ্বারোহীর ন্যায় যে পচন্ড গরমের একদিন ভ্রমনে বের হয়ে একপর্যায়ে একটি গাছের নিচে ঈষৎ নিদ্রা গেল, তারপর কিছুক্ষন বিশ্রাম নিয়ে সেখান থেকে চলে গেল।”
রাসূলের চোখে দুনিয়া (কিতাবুয যুহ্দ)

ইবনুল কায়্যিম রহ. বলেন, জেনে রেখো! কলব যখন দুনিয়া ও সম্পদের মোহ, নেতৃত্ব ও সুনামের কামনা থেকে মুক্ত হয়, তখন তা পরকালের সফলতার প্রস্তুতি ও চিন্তায় বিভোর হয়।

বইঃ যেমন ছিলেন তাঁরা…।
পৃষ্ঠাঃ৯৭

আরো পড়ুন,

রমজান মাসের ফজিলত ও গুরুত্ব

রমজান মাসের দোয়া এবং আমল সমূহ

রমজানের মাসআলা সমূহ

রমজানের পূর্ব প্রস্তুতি যেভাবে নেবেন

রমজানের সময় সূচি 2022

ইফতারের দোয়া এবং নিয়ত

রোজার নিয়ত

Leave a Reply

thirteen − twelve =

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.